সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে ২০ হাজার পরিবারকে ত্রাণ দেবে বাংলালিংক

digitalsomoy

চলমান করোনা পরিস্থিতি, আর্থিক সংকট ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত ২০ হাজার পরিবারকে ত্রাণ দেবে বাংলালিংক। সেনা কল্যাণ সংস্থা ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় দেশের বিভিন্ন প্রান্তে এই ত্রাণ বিতরণ করা হবে।

ঢাকায় সেনা কল্যাণ সংস্থার প্রধান কার্যালয়ে বাংলালিংক-এর চিফ কর্পোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার তাইমুর রহমান ও সেনা কল্যাণ সংস্থার চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম, এনডিসি, পিএসসি নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে এই ত্রাণ কর্মসূচি সংক্রান্ত একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেন। চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলালিংক-এর চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার এরিক অস, চিফ এথিকস অ্যান্ড কমপ্ল্যায়ান্স অফিসার মুনিরুজ্জামান শেখ ও অ্যাকটিং চিফ টেকনোলজি অফিসার হাসনাত রেজা মাহবুব আলম।

ত্রাণ কার্যক্রমটির প্রথম ধাপ চলতি মাসে ও দ্বিতীয় ধাপ আগামী সেপ্টেম্বর ও অক্টোবর মাসে পরিচালিত হবে। প্রতিটি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে চাল, ডাল, তেল, সুজি, চিনি, লবণ, বার সাবান এবং খাবার স্যালাইন দেওয়া হবে বাংলালিংক-এর পক্ষ থেকে।

বাংলালিংক-এর চিফ কর্পোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার তাইমুর রহমান বলেন, “মহামারী, আর্থিক সংকট ও বন্যার মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের কাছে পৌঁছানোর জন্য আমরা সেনা কল্যাণ সংস্থার সাথে এই চুক্তি স্বাক্ষর করেছি। একটি সামাজিকভাবে দায়বদ্ধ কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান হিসাবে আমরা ক্ষতিগ্রস্ত মানুষেরপাশে থেকে তাদেরকে এই পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠতে সহায়তা করতে চাই। এই উদ্যোগে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও সেনা কল্যাণ সংস্থাকে সহযোগী হিসেবে পেয়ে আমরা খুবই আনন্দিত।"

সেনা কল্যাণ সংস্থার চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম, এনডিসি, পিএসসি বলেন, “আমরা বাংলালিংকের ত্রাণ বিতরণ কর্মসূচিতে আবারও অংশীদার হতে পেরে আনন্দিত। বাংলালিংক যেভাবে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের সহায়তার জন্য সবসময় এগিয়ে আসে তা সত্যই প্রশংসনীয়। সেনা কল্যাণ সংস্থা তাদের এই উদ্যোগকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় সহায়তা দেবে।"