স্টার্টআপ ব্যবসায় ভারতের সঙ্গে কাজ কারার আগ্রহ পলকের

digitalsomoy

স্থানীয় সংস্কৃতি ও মূল্যবোধ মেনে ফেসবুক ও টুইটারের মতো পশ্চিমা কোম্পানি নিয়ন্ত্রিত সোশ্যাল মিডিয়াকে জিডিপিআর-এর মতো আইনের অধীনে আনতে দক্ষিণ এশিয়ার সার্কভুক্ত দেশ কিংবা বিমসটেকের সদস্যদের একটি কমন ডেটা সুরক্ষা আইন তৈরির প্রস্তাব দিয়েছেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

একইসঙ্গে ৬৪ জেলাতেই বিডি সেট স্থাপনে ভারতের সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মধ্যে অনুষ্ঠিতব্য ভার্চুয়াল বৈঠকে এই বিষয়ে একটি সমঝোতা চুক্তির বিষয়ে ভারতের রাষ্ট্রদূত বিক্রম দোরাইস্বামীর কাছে প্রস্তাব দিয়েছেন জুনাইদ আহমেদ পলক। এছাড়াও ভারতের অর্থায়নে ১৯২ মিলিয়ন ডলার ব্যয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে ১২টি আইটি পার্ক ও ৫০টির বেশি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশেষায়িত ল্যাব স্থাপন ও ৩০ হাজার তরুণকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। ২০২৩ সাল নাগাদ এই প্রকল্প বাস্তবায়িত হবে বলে জানিয়েছেন প্রতিমন্ত্রী।

মঙ্গলবার আইসিটি টাওয়ারের হাইটেকপার্ক কর্তপক্ষের অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত দ্বি-পাক্ষিক বৈঠকে এসব তথ্য জানান প্রতিমন্ত্রী। এসময় বাংলাদেশ-ভারত স্টার্টআপ ব্যবসায় সংস্কৃতি গড়ে তুলতে একসঙ্গে কাজ কারার আগ্রহ প্রকাশ করেন তিনি। পলক বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ সফরের সময় সম্পাদিত চুক্তি অনুযায়ী, ইন্ডাস্ট্রি ও একাডেমির মধ্যে বিদ্যমান শূন্যতা পূরণে ২০২১ সাল থেকে ২০২৩ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে ৬১ কোটি টাকা ব্যয়ে ৬টি জেলায় বাংলাদেশ-ভারত ডিজিটাল সার্ভিস অ্যান্ড ইমপ্লিমেন্টেশন সেন্টার (বিডিসেট সেন্টার) স্থাপনে বাংলাদেশকে ২৫ কোটি টাকা অনুদান দেবে ভারত।

এসময় আইসিটি বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব এনএম জিয়াউল আলম, হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম উপস্থিত ছিলেন।