করোনার থাবায় থমকে গেছে পৃথিবীর কলরব। শূন্য হয়ে আছে ভূপৃষ্ঠের সবচেয়ে কোলাহলপূর্ণ প্রান্তর নিউ ইয়র্ক টাইম স্কয়ার। কোনো অপরাধ ছাড়াই স্ত্রীসহ গৃহবন্দি হয়ে আছেন কানাডার মতো সুপার পাওয়ার দেশের প্রধানমন্ত্রী, লন্ডন ব্রিজে হাঁটছে না কোনো মানুষ, প্রভু প্রেমের অমিয় মোহে কাবার চারপাশে ঘুরছে না মুসলমান, ভাটিক্যান আজ মানুষবিহীন নিস্তব্ধ প্রান্তর, ভেনিসের জলে ভাসছে না কোনো নবদম্পতি আর পর্যটকের প্রমোদতরী, সমগ্র ইতালি যুদ্ধ ছাড়াই অবরুদ্ধ, শূন্য গগনে উড়ছে না প্লেন আর সীমান্ত পেরিয়ে ঢুকছে না কোনো আন্তর্দেশীয় ট্রাক আর ট্রেন।

মিডিয়ার কল্যাণে আমরা দেখতে পাচ্ছি এই কঠিন সংকট পরিস্থিতিতে অসংখ্য মানুষ কী দুর্বিষহ জীবন পার করছে। কর্মহীন শ্রমজীবী জনতা না খেয়ে আছে, ক্ষুধার যন্ত্রণায় কান্নাকাটি করছে ছোট ছোট শিশু। একটু চাল ও ডালের জন্য রাস্তায় এসে হাহাকার করছে মানুষ। আলহামদুলিল্লাহ এ কঠিন পরিস্থিতিতে সরকারিভাবে তাদের জন্য আসছে নানা বরাদ্দ। এসব মানুষের সহায়তায় এগিয়ে এসেছে অনেক সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার সংগঠন। ব্যক্তিগত পর্যায়েও নিজ নিজ অর্থভাণ্ডার খুলে দিয়েছেন অনেক ধনপতি।

কিন্তু খুবই আপত্তিকর এবং আফসোসের কথা হচ্ছে, যেসব মানুষকে এসব বণ্টনের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে; সমাজপতিদের যাঁরা এসব বণ্টনের তদারকি বা কর্ণধার আছেন; অনেক ক্ষেত্রেই সেই দায়িত্বশীলরা এসব ত্রাণসামগ্রীর সুষম বণ্টন করতে ব্যর্থ হচ্ছেন। কোথাও তো এমনও দেখা যাচ্ছে, তাঁরা এই ত্রাণসামগ্রীগুলো নিজেরা আত্মসাৎ করছেন। মানুষ কতটা কঠিন হলে, মানুষের ভেতরটা কতটা নিকৃষ্ট হলে এই ভয়াবহ অবস্থায়ও নিরীহ অসহায় মানুষের খাবার নিজেরা ভক্ষণ করে!

অথচ সমাজের সবার অধিকার রয়েছে এমন কোনো সম্পদ; বিশেষ করে বাইতুলমাল অথবা গনিমতের মাল; যার হক সব যোদ্ধার ছিল এসব সম্পত্তি কেউ যদি আত্মসাৎ করত, তাদের ব্যাপারে রাসুল (সা.) খুবই কঠোর ছিলেন। খাইবার যুদ্ধে যখন অসংখ্য সাহাবা শাহাদাতবরণ করলেন, আর লোকেরা যখন বিভিন্ন লোকের শহীদ হওয়ার সংবাদ রাসুল (সা.)-কে শোনাচ্ছিল। মুসলিম শরিফে বর্ণিত হয়েছে— ‘উমার (রা.) বলেন, খাইবারে অমুক অমুক শহীদ হয়েছেন। অবশেষে এক ব্যক্তি প্রসঙ্গে তাঁরা বললেন, সেও শহীদ হয়েছে। কিন্তু রাসুল (সা.) বললেন, কখনোই না। গনিমতের মাল থেকে চাদর আত্মসাৎ করার কারণে আমি তাকে জাহান্নামে দেখেছি। (মুসলিম, হাদিস : ২০৯) দেখুন একজন সাহাবির ব্যাপারেও কত কঠোর মূলনীতি ঘোষিত হয়েছে।

khalednbd
Author: khalednbd

I am Editor of Digital Somoy