ডিজিটাল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোকে তথ্যসুরক্ষা ও সাইবার নিরাপত্তার দিকে গুরুত্ব দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। আজ ডিজিটাল প্লাটফর্মে “পাঠাও টেলিমেডিসিন “সেবার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আহ্বান জানান । তিনি বলেন, কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে ডিজিটাল স্বাস্থ্যসেবা গেমচেঞ্জার হিসেবে আবির্ভূত হবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করে ভাতা প্রদানের ক্ষেত্রে আঙুলের ছাপের পরিবর্তে ফেস রিকগনিশন প্রযুক্তি ব্যবহার করতে যাচ্ছে সরকার। ইতোমধ্যে বয়স্ক ও বিধবা ভাতা প্রদানে এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

পলক বলেন, টেলিমেডিসিন খরচ ও ঝুঁকি কমায়। ইতোমধ্যেই প্রভা, সহজ ও পাঠাও এর মতো প্রতিষ্ঠানগেুলো টেলিমেডিসিন সেবা চালু করছে। এটা শুধু প্রযুক্তির ব্যবহারই বাড়াচ্ছে না, ঝুঁকি ও খরচ কমাবে। বেশি সংখ্যক মানুষের কাছে সেবা পৌঁছে দিতে উৎসাহিত করবে।

এসময় প্রতিটি জায়গায় প্রযুক্তির ব্যবহার হচ্ছে উল্লেখ করে খাবার ও স্বাস্থের পর শিক্ষাসহ অনেক মৌলিক সেবায় পাঠাও যুক্ত হবে বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন প্রতিমন্ত্রী। তিনি বলেন, সরকার-বেসরকারি উদ্যোগের মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে অন্যান্য স্টার্টআপরাও পাঠাও এর মতো যুক্ত হবে।

পাঠাও সিইও হুসাইন এম ইলিয়াসের সভাপতিত্বে ডিজিটাল সংবাদ সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এটুআই/ইউএনডিপির পলিসি অ্যাডভাইজর আনির চৌধুরী। তিনি বলেন, কোভিড আমাদেরকে ডিজিটাল প্লাটফর্ম ব্যবহারে এগিয়ে নিয়েছে।

অনুষ্ঠানে অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ডিজিটাল হেলথ কেয়ার সল্যুশন সহ প্রতিষ্ঠাতা সাজিদ রহমান, মায়া’র প্রতিষ্ঠাতা সিইও আইভি রাসেল, মেডিকেল টিম লিড ডা. তানজিনা শারমিন, প্রাভা হেলথ’র প্রতিষ্ঠাতা প্রধান নির্বাহী সিল্ভানা সিনহা প্রমুখ।

dsadmin
Author: dsadmin