যুক্তরাষ্ট্রে আটকেপড়া ২৪২ জন বাংলাদেশিকে নিয়ে একটি বিশেষ বিমান রোববার ভোরে দেশে পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

শুক্রবার রাতে বাংলাদেশের উদ্দেশে ওয়াশিংটন ডুলস আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর (আইএডি) ত্যাগ করে বিমানটি। খবর ইউএনবির।

দেশে ফেরত আসা যাত্রীদেরকে বিমানবন্দরে বিদায় জানান যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন। এসময় দূতাবাসের অন্যান্য কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন।

কাতার এয়ারলাইন্সের বিশেষ চার্টার্ড এ ৩৫০-৯০০ এয়ারবাসটি ১১টা ০৪ মিনিটে ডুলস আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করে।

ওয়াশিংটনে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস জানিয়েছে, কাতারের দোহা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এক ঘণ্টা প্রযুক্তিগত বিরতির পর রোববার ভোর ৪টায় বিমানটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের কথা রয়েছে।

যাত্রীদের মধ্যে বেশিরভাগ যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করা বাংলাদেশি শিক্ষার্থী, পর্যটন ও ব্যবসায় ভিসায় যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়া বাংলাদেশি নাগরিক এবং কিছু সরকারি ও বেসরকারি কর্মকর্তা রয়েছেন।

এছাড়া যাত্রীদের মধ্যে স্কুল এবং কলেজের ৪৯ শিক্ষার্থীও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে যারা শিক্ষামূলক এবং সাংস্কৃতিক বিষয়াদি (ইসিএ) কার্যক্রমের আওতায় যুক্তরাষ্ট্রে গিয়েছিলেন।

গত ৪ মে যুক্তরাষ্ট্রে আটকা পড়া বাংলাদেশিদের দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য কাতারের বিমান সংস্থার বিমানটি চার্টার্ড করেছিল পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

এর আগে ৩০ মার্চ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে ওয়াশিংটনে বাংলাদেশ দূতাবাস এবং নিউইয়র্ক ও লস অ্যাঞ্জেলেসের দুই কনসুলেটে তাদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে করোনাভাইরাস মহামারির কারণে যুক্তরাষ্ট্রে আটকেপড়া বাংলাদেশিদের কাছ থেকে তথ্য চেয়ে একটি নোটিশ প্রচার করে।

পরে বিপুল সংখ্যক আটকে থাকা বাংলাদেশি নাগরিক তাদের নিজস্ব ব্যয়ে একটি বিশেষ চার্টার ফ্লাইটে বাংলাদেশে ফেরার আগ্রহ প্রকাশ করে ৩০ মার্চ থেকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত বাংলাদেশ মিশনগুলোতে ইমেইলের মাধ্যমে তাদের তথ্য সরবরাহ করেন।

তারা বাংলাদেশ মিশনগুলোর মাধ্যমে বাংলাদেশ সরকারকে একটি বিশেষ বিমানের মাধ্যমে তাদেরকে ফিরতে সহায়তা করার অনুরোধ জানায়।

কাতার এয়ারলাইন্সের বিশেষ চার্টার্ড এ ৩৫০-৯০০ এয়ারবাসটি ১৬ মে সন্ধ্যা ৭টায় দোহা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

দোহা বিমানবন্দরে এক ঘণ্টা প্রযুক্তিগত বিরতির পর বিমানটি স্থানীয় সময় রাত ৮ টায় ঢাকার উদ্দেশে দোহা ত্যাগ করবে।

khalednbd
Author: khalednbd

I am Editor of Digital Somoy